Breaking News
Home / যুক্তরাজ্য / কোয়ারেন্টাইন ছাড়াই যুক্তরাজ্যে প্রবেশের সুযোগ

কোয়ারেন্টাইন ছাড়াই যুক্তরাজ্যে প্রবেশের সুযোগ

করোনার পূর্ণাঙ্গ টিকা নেওয়া যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের দেশের নাগরিকদের কোয়ারেন্টাইন ছাড়াই যুক্তরাজ্যে প্রবেশের সুযোগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী সোমবার থেকে এটি কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সরকার। দেশটিতে থাকা পরিবারের স্বজনদের সঙ্গে একত্রিত হওয়ার সুযোগ দিতেই এ সিদ্ধান্ত বলেও জানানো হয়।

এতদিন শুধুমাত্র যুক্তরাজ্যে টিকা নেওয়া ব্যক্তিরা বিভিন্ন দেশ থেকে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন ছা’ড়াই যুক্তরাজ্য প্রবেশের অনুমতি পেলেও এই সিদ্ধান্তে শিথিলতা আনা হয়েছে। যুক্তরাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী গ্রান্ট শাপস জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ইইউর অনুমোদিত করোনা’র যে কোনো টিকা নেওয়া ব্যক্তিদের এখন থেকে আর বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন থাকছে না। তবে যুক্তরাজ্য প্রবেশের আগে কিংবা যাওয়ার দুদিন পর নমুনা পরীক্ষা বাধ্য’তামূলক বলে জানানো হয়েছে। ১৮ এর কম বয়সীদের ক্ষেত্রেও কোয়া’রেন্টাইনে শিথিলতা আনা হয়েছে। বয়স বিবেচনায় তাদের ক্ষেত্রে নমুনা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই।

ব্রিটিশ পরিবহনমন্ত্রী বলেন, প্রত্যেক ব্রিটিশ বিশ্বাস করে আমাদের দেশের নাগরিকদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তাকে আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেই। আপনারা দেখতেই পাচ্ছেন, দিন দিন করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। আমরা এটি অব্যাহত রাখতে চাই। একইসঙ্গে করোনার নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্ট যে’ন বিস্তার ঘটতে না পারে সেদিকেও আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছি।

গত এক সপ্তাহে দেশটিতে অনেকটাই কমে এসেছে করোনার সংক্রমণ। যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের দেশগুলোর পাশাপাশি এখন থেকে স্কট’ল্যান্ড, ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের বাসিন্দারাও কোয়ারেন্টাইন ছাড়াই যুক্তরাজ্য প্রবেশ করতে পারবেন। আর এটিকে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত হিসেবে দেখছে স্কটল্যান্ড। দেশ’টির পরিবহনমন্ত্রী বলেছেন, এই সিদ্ধান্তের ফলে পর্যটন ও বৃহত্তর অর্থনৈতিক খাতের উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।

তবে যুক্তরাজ্য সরকারের সিদ্ধান্ত জনস্বাস্থ্যকে হুমকির মুখে ফেলতে পারে বলে আশঙ্কা ওয়েলস সরকারের। এদিকে আগামী ২০২২ এর মধ্যে বিশ্বের প্রতিটি দেশকে পুরোপুরি ভ্যাকসিনের আওতায় দেখতে চায় যুক্তরাজ্য। যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোমিনিক রাব জানিয়েছেন, এরইমধ্যে তার দেশ প্রায় এক কোটি ডোজ টিকা ইন্দোনেশিয়া, জ্যামাইকা ও কেনিয়াকে অনুদান দিচ্ছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ও সংক্রমণ বেড়েছে। এ সময় মারা গেছেন আরও ১০ হাজার ১৩৫ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৫৯ হাজার ১০৯ জন।

বিশ্বে এখন পর্যন্ত মোট করোনায় মৃত্যু হলো ৪২ লাখ ০২ হাজার ৮১০ এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৯ কোটি ৬৬ লাখ ৪৮ হাজার ৮১৬ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৭ কোটি ৮০ লাখ ৮০ হাজার ১৭৪ জন।

About ja

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: