Breaking News
Home / প্রবাস / বিদেশ থেকে মোবাইল আনার ক্ষেত্রে নতুন যে নিয়ম চালু

বিদেশ থেকে মোবাইল আনার ক্ষেত্রে নতুন যে নিয়ম চালু

মোবাইল ফোনের নিবন্ধন সংশ্লিষ্ট ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) কার্যক্রম গত বৃহস্পতিবার থেকে পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়েছে। এ কার্যক্রম তিন মাসের জন্য পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়েছে। বাংলাদেশে উৎপাদিত, আমদানিকৃত এবং বিদ্যমান প্রতিটি হ্যান্ডসেটের রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে মোবাইল চু’রি রোধ, অ’বৈধভাবে মোবাইল হ্যান্ডসেটের অনুপ্রবেশ রোধ, সরকারের রাজস্ব আয় বৃদ্ধি, জাতীয় নিরাপত্তার সহায়ক হিসেবে এ কার্যক্রম পরিচা‌লিত হ‌চ্ছে।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এই ব্যবস্থা নি‌য়ে গ্রাহকের সম্ভাব্য বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিয়েছে। যা পাঠকের জন্য তুলে ধরা হলো- ১. কারো হ্যান্ডসেট চু’রি হলে যথাযথ ডকুমেন্ট সাবমিট করে হ্যান্ডসেট নিষ্ক্রিয় করার কোনো ব্যবস্থা থাকবে? উত্তর: পরীক্ষাকালীন সময় তিন মাস অতিবাহিত হলে হ্যান্ডসেট নিষ্ক্রিয় করার ব্যবস্থা থাকবে।

২. অফিসিয়াল হ্যান্ডসেটের আইএমইআই নাম্বার বিটিআরসি ডাটাবেজে যুক্ত হতে সর্বোচ্চ কতদিন সময় লাগতে পারে? উত্তর: বিটিআরসির পূর্বানুমোদন গ্রহণপূর্বক বাংলাদেশে উৎপাদিত অথবা বিদেশ হতে আমদানীকৃত সকল হ্যান্ডসেট বিক্রয়ের পূর্বে উৎপাদনকারী/আমদানীকারক কর্তৃক বিটিআরসি ডাটাবেজে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

৩. একজনের নামে সর্বোচ্চ কয়টি হ্যান্ডসেট রেজিস্টার করা যাবে? উত্তর: কোনো সিমাবদ্ধতা আরোপ করা হয়নি। তবে বিদেশ থেকে হ্যান্ডসেট আনয়নের ক্ষেত্রে বিদ্যমান ব্যাগেজ রুলস অনুযায়ী একজন ব্যক্তি বিদেশ থেকে শুল্ক বিহীন সর্বোচ্চ দুইটি এবং শুল্ক প্রদান স্বাপেক্ষে আরও ছয়টি হ্যান্ডসেট সঙ্গে আনতে পারবে।

৪. এনইআইআর-এর কার্যক্রম কি রাত ১২টা থেকেই কার্যকর হবে? অর্থাৎ রাত ১২টায় যে হ্যান্ডসেটে যেই সিম ইনসার্ট থাকবে সেটাই নিবন্ধিত হবে কি-না? (বলা হয়েছে ৩০ জুন ২০২১ এর মধ্যে নিবন্ধিত হবে) উত্তর: হ্যাঁ।

৫. কারো হ্যান্ডসেটে সিম ১ স্লটে নিজের নামে ও সিম ২ স্লটে অন্য কারও নামে রেজিষ্ট্রেশন করা সিম চালু থাকে তবে কোন সিম থেকে কার নামে হ্যান্ডসেট রেজিস্টার হবে? উত্তর: IMEI নম্বর অনুযায়ী প্রতিটি স্লটে ব্যবহৃত সিমের বিপরীতে স্লটের ব্যবহার অনুযায়ী আলাদাভাবে রেজিস্ট্রেশন করা হবে।

৬. বিদেশ থেকে আনা হ্যান্ডসেটের ক্ষেত্রে যে শুল্কমুক্ত দুটি হ্যান্ডসেটের কথা বলা হয়েছে এই দুটি হ্যান্ডসেট কী ব্যক্তিগত ব্যবহৃত ফোন বাদ দিয়ে হিসেব করা হবে? উত্তর: ব্যক্তিগত ব্যবহৃত মোবাইল হ্যান্ডসেট সর্বোচ্চ দুটি হ্যান্ডসেট বিনা শুল্কে বিদেশ থেকে আনা যাবে।

৭. এনইআইআর এ বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধন এর ক্ষেত্রে কি চার্জ প্রযোজ্য? প্রযোজ্য হলে তার পরিমান কিভাবে নির্ধারণ হবে ? উত্তর: বিদেশ থেকে আনা মোবাইল ফোন নিবন্ধনের ক্ষেত্রে কো‌নো চার্জ/ফি প্রদান করতে হবে না।

৮. বিদেশ থেকে আনা অতিরিক্ত হ্যান্ডসেট রেজিস্টার করার জন্য কি কি ডকুমেন্ট সাবমিট করতে হবে? উত্তর: বিদেশ থেকে আসার সময় সঙ্গে নিয়ে আসা সর্বোচ্চ দুইটি ফোন নিবন্ধনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য/দলিল এর তালিকা-

* পাসপোর্ট নম্বর
* পাসপোর্টে ইমিগ্রেশন কর্তৃক প্রদত্ত আগমনের সিল সম্বলিত পাতা এর স্ক্যান/ছবি;

বিদেশ থেকে শুল্ক পরিশোধ সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ছয়টি হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য/ দলিল এর তালিকা-
* পাসপোর্ট নম্বর
* পাসপোর্টে ইমিগ্রেশন কর্তৃক প্রদত্ত আগমনের সিল সম্বলিত পাতা এর স্ক্যান/ছবি;
* কাস্টমস্‌ শুল্ক পরিশোধ সংক্রান্ত প্রমাণপত্রের স্ক্যান/ছবি;

বিদেশ থেকে কুরিয়ারের মাধ্যমে আনীত ফোন নিবন্ধনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য/দলিল এর তালিকা-
* কমার্শিয়াল ইনভয়েসের স্ক্যান/ছবি;
* প্রাপকের জাতীয় পরিচয় পত্রের স্ক্যান/ছবি;
* কাস্টমস্‌ শুল্ক পরিশোধ সংক্রান্ত প্রমাণপত্রের স্ক্যান/ছবি;

৯. এনইআইআর এর আওতায় অনিবন্ধিত সেটসমুহ ৩০শে জুন এর মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যদি নিবন্ধিত না হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আমরা গ্রাহকদের কাছে কি কোনো সময় চেয়ে নিব? যদি নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে নিবন্ধন না হয় তাহলে আমরা এই ব্যাপারে কমপ্লেইন রাখলে কি কি তথ্য গ্রাহকদের থে‌কে সংগ্রহ করবো? উত্তর: গ্রাহক কর্তৃক বর্তমানে মোবাইল ফোন নেটওয়ার্কে ব্যবহৃত সকল হ্যান্ডসেট ৩০ জুন ২০২১ তারিখের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিবন্ধিত হবে। উক্ত সময়ের মধ্যে সচল কোনো হ্যান্ডসেটই অনিবন্ধিত থাকবে না।

১০. ৩০শে জুন এর মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে হ্যান্ডসেট রেজিস্ট্রেশন হয়েছে কি-না তা জানার উপায় কি? স্বয়ংক্রিয়ভাবে না হলে পরবর্তী পদক্ষেপ কি? উত্তর: স্বয়ংক্রিয়ভাবে রেজিস্ট্রেশন না হলে এসএমএস যাবে। কো‌নো এসএমএস না গেলে বুঝতে হবে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে রেজিস্ট্রেশন হয়েছে। শুধুমাত্র বিদেশ হতে আনা এবং বিদেশ হতে উপহার প্রাপ্ত হ্যান্ডসেটের ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ থাকবে। দেশে ক্রয়কৃত হ্যান্ডসেট অ’বৈধ হলে তা রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ থাকবে না। ক্রয়ের পূর্বে হ্যান্ডসেটের বৈধতা যাচাই করার সুযোগ রয়েছে।

১১. অনেক আগে কেনা আনঅফিসিয়াল ফোনে ৩০ জুন তারিখে কো‌নো সিম সচল না থাকলে বা কোন কারণে ওইদিন নেটওয়ার্কে যুক্ত না থাকায় হ্যান্ডসেট রেজিস্টার না হলে পরবর্তীতে কি করণীয়? উত্তর: পরীক্ষামূলক সময়ে হ্যান্ডসেটটি ব্যবহার করা যাবে। সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

১২. মোবাইল অপারেটর এর গ্রাহকসেবা কেন্দ্র থেকে এনইআইআর সংক্রান্ত কি কি ধরনের সেবা দেওয়া হবে? নিবন্ধন সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানে মোবাইল অপারেটরগুলো অপারগ হলে গ্রাহকের করণীয় কি? উত্তর: এনইআইআর সংক্রান্ত সব সেবা প্রদানের জন্য মোবাইল অপারেটরগু‌লো‌কে এরই ম‌ধ্যে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। সে অনুযায়ী মোবাইল অপারেটরগণের কাস্টমার কেয়ার নম্বর ১২১ এ ডায়াল করে এবং অপারেটরগণের কাস্টমার কেয়ার সেন্টার হতে এ সম্পর্কিত সেবা গ্রহণ করা যাবে। কোনো কারণে মোবাইল অপারেটর সেবা প্রদানে অপারগ হলে বিটিআরসি’র হেল্পডেস্ক নম্বর ১০০ এ ডায়াল করে এ সম্পর্কিত সেবা গ্রহণ করা যাবে। এনইআইআর সংক্রান্ত সকল তথ্যাদি neir.btrc.gov.bd তে দেয়া রয়েছে।

১৩. ১টা সিম কার্ড এর সঙ্গে হ্যান্ডসেট নিবন্ধন হয়ে গেলে পরবর্তীতে নতুন সিম কার্ডের স‌ঙ্গে নিবন্ধন করা যাবে কিনা? উত্তর: পরীক্ষামূলক সময়কালে তিন মাস ডি-রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই হ্যান্ডসেট হস্তান্তর করা যাবে। উল্লেখ্য যে, একজন গ্রাহক নিজ নামে রেজিস্ট্রিকৃত যে কোনো সিম দিয়ে যে কোনো হ্যান্ডসেট ব্যবহার করতে পারবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে ডি-রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে।

১৪. *১৬১৬১# USSD ডায়াল করে ব্যবহৃত মোবাইল হ্যান্ডসেট এর বর্তমান অবস্থা যাচাই প্রক্রিয়া এখনো একটিভ না, কবে নাগাদ একটিভ হবে? উত্তর: ০১ জুলাই থে‌কে *১৬১৬১# USSD ডায়াল করে ব্যবহৃত মোবাইল হ্যান্ডসেট এর বর্তমান অবস্থা যাচাই করা যাবে।

১৫. আন্তর্জাতিক ও দেশি ই-কমার্স থেকে মোবাইল কেনার ক্ষেত্রে তো বৈধতা যাচাই এর কোনো সুযোগ থাকছে না, সেক্ষেত্রে করণীয় কি? উত্তর: দেশি ই-কমার্স থেকে মোবাইল কেনার পূর্বে অবশ্যই হ্যান্ডসেটটির বৈধতা মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD১৫ ডিজিটের IMEI নম্বর লিখে ১৬০০২ নম্বরে প্রেরণের মাধ্যেম যাচাই করা যাবে। বিদেশ থেকে ব্যক্তি পর্যায়ে বৈধভাবে ক্রয়কৃত অথবা উপহারপ্রাপ্ত হ্যান্ডসেট স্বয়ংক্রিয়ভাবে নেটওয়ার্কে সচল হবে। দশ দিনের মধ্যে অনলাইনে তথ্য/দলিল প্রদান করে নিবন্ধন করার জন্য এসএমএস প্রদান করা হবে। দশ দিনের মধ্যে নিবন্ধন সম্পন্ন করলে উক্ত হ্যান্ডসেট বৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে। উক্ত সময়ের মধ্যে নিবন্ধন সম্পন্ন করা না হলে হ্যান্ডসেটটি বৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে না এবং সেগুলো সম্পর্কে গ্রাহককে এসএমএস এর মাধ্যমে অবহিত করে পরীক্ষাকালীন সময়ের জন্য নেটওয়ার্কে সংযুক্ত রাখা হবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

১৬. যেহেতু MSISDN ও NID এর মাধ্যমে মোবাইল নিবন্ধিত হচ্ছে , সেটা পরবর্তীতে মালিকানা পরিবর্তন এর সুযোগ আছে কি? উত্তর: পরীক্ষামূলক সময়কালে তিন মাস ডি-রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই হ্যান্ডসেট হস্তান্তর করা যাবে। উল্লেখ্য যে, একজন গ্রাহক নিজ নামে রেজিস্ট্রিকৃত যে কোনো সিম দিয়ে যে কোনো হ্যান্ডসেট ব্যবহার করতে পারবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে ডি-রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে।

১৭. হ্যান্ডসেট ক্রয়ের ক্ষেত্রে কোন প্রকার অবৈধতা সম্পর্কে ক্ষতিগ্রস্থ গ্রাহক কোথায় যোগাযোগ করবে? উত্তর: এনইআইআর সংক্রান্ত সকলসেবা প্রদানের জন্য মোবাইল অপারেটরগু‌লো‌কে এরই মধ্যে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে এবং সে অনুযায়ী মোবাইল অপারেটরগণের কাস্টমার কেয়ার নম্বর ১২১ এ ডায়াল করে এবং অপারেটরগণের কাস্টমার কেয়ার সেন্টার হতে এ সম্পর্কিত সেবা গ্রহণ করা যাবে। কোন কারনে মোবাইল অপারেটরগণ সেবা প্রদানে অপারগ হলে বিটিআরসি’র হেল্পডেস্ক নম্বর ১০০ এ ডায়াল করে এ সম্পর্কিত সেবা গ্রহণ করা যাবে। এনইআইআর সংক্রান্ত সব neir.btrc.gov.bd তে দেয়া রয়েছে।

About ja

Check Also

১১ দেশের যাত্রী প্রবেশে বেবিচকের নিষেধাজ্ঞা

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে টিকার দুই ডোজ না নিলে ১১ দেশের যাত্রীদের বাংলাদেশে প্র’বেশ করতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: